Suzuki Bangladesh
চেইন পরিষ্কার এবং লুব করার নিয়ম - দেশি বাইকার

চেইন পরিষ্কার এবং লুব করার নিয়ম

Tourino Tyres

চেইন বাইকের অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ। চেইন এর উপর বাইকের পারফর্মেন্স, মাইলেজ নির্ভর করে। তাই একটা বাইক থেকে ভালো পারফর্মেন্স পেতে হলে অন্যান্য পার্টস এর সাথে সাথে চেইন এর যত্ন নেয়া আবশ্যক ।

আর তাই আজকে আমি আপনাদেরকে বলব, কিভাবে নিজে নিজে চেইন পরিষ্কার ও লুব করবেন।

প্রথমেই জেনে নিব চেইন কি এবং এর কাজ কি?

চেইন হলো বাইকের সেই অংশ যার মাধ্যমে বাইক গিয়ার বক্সের সাহায্য বাইকের শক্তি পিছনের চাকায় সরবরাহ করে থাকে । আর ঠিক এই কারনেই চেইন বাইকের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি অংশ ।

আসলে প্রতি ৫০০-১০০০কিঃমিঃ বাইক রাইডের মধ্যে অন্ততঃ একবার চেইন পরিষ্কার করা দরকার। বিশেষ করে যাদের চেইন কাভার নেই তাদের ৫০০কিঃমিঃ পরপর পরিষ্কার করা ভালো।

এখন আমি আপনাদেরকে বলব কিভাবে নিজে নিজে আপনার বাইকের চেইন পরিষ্কার করবেন তার বিস্তারিত।

নিজে নিজে এই কাজটি করতে প্রয়োজন সামান্য কিছু জিনিস যা সহজলভ্য। নিচে তার বিস্তারিত তুলে ধরলাম :

প্রয়োজনীয় উপকরন:

০১. টুথব্রাশ
০২. কেরোসিন
০৩. নরম কাপড়
০৪. চেইনঅয়েল অথবা গিয়ার অয়েল অথবা অব্যবহৃত ইঞ্জিন ওয়েল
০৫. লুব গান অথবা সিরিন্জ

(ও রিং চেইন হলে , ও রিং এর উপযোগী চেইন ক্লিনার এবং ও রিং এর উপযোগী চেইন লুব )

বাজারে চেইন ওয়াশ করার জন্য ক্লিনার এবং পরে ব্যবহারের জন্য লুব্রিকেন্ট পাওয়া যায়, চাইলে সেগুলো ব্যবহার করতে পারেন।

প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র গুছিয়ে নেওয়ার পর যা করতে হবে তা হচ্ছে, একটি সমতল স্থানে বাইকটিকে ডাবল স্ট্যান্ড করুন।এরপর চেইন কাভার থাকলে সেটি খুলে ফেলুন। যাদের চেইন কাভার নেই তাদের এই কাজটি করতে হচ্ছে না। এবার কেরোসিনে টুথব্রাশ ডুবিয়ে টুথব্রাশটি দিয়ে চেইনে কেরোসিন লাগাতে থাকুন। এক হাত দিয়ে চাকা ঘুরিয়ে অন্য হাতে চেইনে কেরোসিন লাগান। এভাবে পুরো চেইনটি কেরোসিনে ভিজিয়ে নিন।

এরপর কিছু সময় অপেক্ষা করুন।

আশা করা যায় অপেক্ষাকৃত সময়ের মধ্যে চেইনে লেগে থাকা ময়লা কিছুটা হলেও নরম হবে। এবার টুথব্রাশ দিয়ে ঘষে ঘষে চেইন থেকে ময়লা পরিষ্কার করতে থাকুন।বলে রাখা ভাল বাজারে এক ধরনের চেইন ব্রাশ পাওয়া যায় যার ৩দিকে ব্রাশ লাগানো থাকে, যেটি দিয়ে খুব সহজেই চেইন পরিষ্কার করা যায়।

চাইলে সেটিও কিনে ব্যাবহার করতে পারেন।

এবার পুরো চেইনটি ব্রাশ করা হয়ে গেলে আবার ব্রাশের সাহায্য পুরো চেইনে কেরোসিন দিয়ে ভিজিয়ে দিন। ৫মিনিট অপেক্ষা করুন। আবার ঘষে ঘষে ব্রাশ করুন। যদি মনে হয় যে শক্ত হয়ে লেগে থাকা ময়লা উঠে গেছে সেক্ষেত্রে নরম কাপড় দিয়ে ঘষে ময়লা ও কেরোসিন মুছে ফেলুন।

এবার পেছনের চাকা ঘুরিয়ে চেইনের কোথাও ময়লা লেগে আছে কি না সেটা চেক করুন ।থাকলে ব্রাশে কেরোসিন ভিজিয়ে ঘষে তুলে ফেলুন এবং কাপড় দিয়ে মুছে ফেলুন। একই ভাবে পেছনের স্প্রোকেট টিও পরিষ্কার করে নিন ।

(তবে মনে রাখবেন , চেইনে গ্রীজ জাতীয় জিনিস ব্যবহার করবেন না ।আর এর প্রথম কারন হচ্ছে , গ্রীজের ঘনত্ব বেশি বলে ময়লা আটকে আরো বেশি। দ্বিতীয়ত শীতের দিনে গ্রীজ এবং ময়লা জমে শক্ত হয়ে গিয়ে চেইনকে স্বাভাবিকভাবে ঘুরতে বাধা দেয়। তাই চেইনের জন্য ব্যবহৃত লুব্রিকেন্ট অথবা গিয়ার ওয়েল অথবা ইঞ্জিন ওয়েল ব্যবহার করতে পারেন। )

পরিষ্কারের পালা শেষ হলে এবার আসবে লুব করার পালা । চলুন এবার দেখে নিই কিভাবে আপনার বাইকের চেইনটি লুব করবেন।

আপনি চাইলে লুব্রিকেন্ট সুই বিহীন সিরিন্জ ব্যবহার করেও লাগাতে পারেন।

পেছনের চাকা ঘুরিয়ে পুরো চেইনে লুব্রিকেন্ট লাগাতে হবে। হাত দিয়ে চাকাটি কয়েকবার ঘোরাতে হবে যেনো পুরো চেইনে ঠিক মতো লুবটি লেগে যায়। কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন যেন অতিরিক্ত অয়েলটি ঝরে যায়। এরপরে বাইকের চেইন কাভার থাকলে সেটি লাগায়ি দিন ।

ব্যস হয়ে গেল আপনার কাজ । এবার আগামী ৫০০ কিমি এর জন্য আপনি টেনশন ফ্রি, যদি আপনার রোড কন্ডিশন ভাল হয় ।

এখন অনেকের মনে হয়ত প্রশ্ন জাগতে পারে , ” কত কিমি পরপর চেইন পরিষ্কার ও লুব করবেন?”

উত্তর হচ্ছে, এইটা নির্ভর করবে আপনার চালানোর উপর। আপনি কি ধরনের পরিবেশে বা রাস্তায় চালাচ্ছেন তার উপর।
তবে যে ভাবেই চালান না কেন মাসে অন্তত ২ বার চেইন ক্লিন করা ভাল।

প্রতি ৩০০-৫০০ কিমি পর পর চেইনে লুব দিলে ভালো হয়।
বর্ষার সময় বেশি বেশি ক্লিন আর লুব দিতে হয় 😀

ধন্যবাদ লেখাটি পড়ার জন্য । আশা করছি আপনাদের উপকারে আসবে।

 

লিখেছেনঃ Mohammad Najmul Hasan Saimon

মন্তব্য
Shell Advance

About The Author

Related Posts

error: Content is protected !!
×