Suzuki Bangladesh
বাংলাদেশে অফিসিয়ালি লঞ্চ হল Yamaha FZ Fi V3 (দাম, প্রি-বুকিং অফার এবং ইভেন্টের বিস্তারিত) - দেশি বাইকার

বাংলাদেশে অফিসিয়ালি লঞ্চ হল Yamaha FZ Fi V3 (দাম, প্রি-বুকিং অফার এবং ইভেন্টের বিস্তারিত)

Tourino Tyres

ইয়ামাহা বাজারে নিয়ে এসেছে এফজেড সিরিজের ৩য় ভার্সন Yamaha FZ Fi Version 3.0। যেটি আজ ২৮ এপ্রিল (রবিবার) রাজধানীর ৫ তারা হোটেল লা মেরিডিয়ানে অফিসিয়ালি লঞ্চ করেছে বাংলাদেশে গ্লোবাল ইয়ামাহার অথরাইজড ডিস্ট্রিবিউটর এসিআই মোটরস লিমিটেড।উক্ত ইভেন্টে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ইয়ামাহা মোটর ইন্ডিয়া গ্রুপের চেয়ারম্যান মিঃ মোতোফামি শিতারা, বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন এসিআই মোটরস-এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর ডঃ এফ এইস আনসারী এবং উপস্থিত ছিলেন এসিআই মোটরস লিমিটেডের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর জনাব সুব্রত রঞ্জন দাশ।

অনুষ্ঠানে অতিথিদের সংক্ষিপ্ত বক্তব্যের পর উম্মোচন করা হয় Yamaha FZ & FZs Version 3. এসিআই মোটরস এর আমন্ত্রনে উপস্থিত ছিলেন দেশের নামকরা বিভিন্ন মোটরসাইকেলিস্ট গ্রুপের মেম্বাররা। ইভেন্টটির মিডিয়া পার্টনার হিসেবে ছিল দেশি-বাইকার ডট কম।

fzs v3 launching in bangladesh

মূল লঞ্চিং ইভেন্টের পর শুরু হয় কালচারাল প্রোগ্রাম। লাইভ মিউজিক, ডান্স শো, ফ্যাশন শো-তে পারফর্ম করেন বাপ্পা মজুমদার, এলিটা করিম, তানজিম তিশা, রিদী শেখ এবং পিয়া জান্নাতুল সহ আরো অনেকে।

এর আগেই এসিআই মোটরস লিমিটেড FZ এবং FZs V3 এর প্রি-বুকিং লঞ্চ করে। যেখানে বাইকটির মূল্য ঘোষনা করা হয়। Yamaha FZ V3 এর মূল্য নির্ধারন করা হয় ২৯০,০০০ টাকা এবং Yamaha FZs V3 এর মূল্য ঘোষনা করা হয় ২৯৫,০০০ টাকা। চলতি এপ্রিল মাসের ৩০ তারিখ পর্যন্ত বাইকটি প্রি-বুকিং করলে থাকছে বিশেষ ছাড়। ঢাকাসহ সারা দেশে ইয়ামাহার যে কোন অথরাইজড শো-রুমে প্রি-বুকিং করা যাবে।

৫০,০০০ টাকা প্রি-বুকিং করলে ১২,০০০ টাকা। ১৫০,০০০ টাকা দিয়ে প্রি-বুক করলে ১৩,৫০০ টাকা এবং সম্পূর্ণ মূল্য দিয়ে প্রি-বুক করলে ১৫,০০০ টাকা ছাড় রয়েছে। এছাড়া শিক্ষার্থীদের জন্য থাকছে উল্লেখিত অফারের সাথে আরো ৫,০০০ টাকা ছাড়। উল্লেখিত যে, শিক্ষার্থীর বয়স ১৮ বছরের উর্ধে হতে হবে, বৈধ আইডি কার্ড ও রেজিস্ট্রেশান নাম্বার থাকতে হবে এবং বাইকটি তার নামেই রেজিস্ট্রেশন করতে হবে। মে মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে ডেলিভারী শুরু হবে বলে কোম্পানিটি জানিয়েছে।

Yamaha FZs V3

Yamaha FZ V3 এবং Yamaha FZs V3 মূলত একই বাইক। “FZs” যেখানে “s” বলতে “Sports” মেনশন করা হয়েছে। সামান্য কিছু পরিবর্তন থাকছে ২টি ভার্সনের মধ্যে। FZs V3 তে থাকছে ইঞ্জিন কাওয়েল, ফুয়েল ট্যাঙ্ক এয়ার ইন্টেকে স্টাইলিশ ক্রোমিয়ামের প্রলেপ যা FZ V3 তে পাচ্ছেন না। FZ V3 এর ২টি এবং FZs V3 এর ৩টি কালার বাজারে নিয়ে এসেছে ইয়ামাহা এবং প্রত্যেকটি কালার এক সাথে এভেলেবল হচ্ছে বাংলাদেশে।

আসুন জেনে নেয়া যাক, আগের ভার্সনটির থেকে এই ভার্সনটিতে কি কি পরিবর্তন আনা হয়েছে। নতুন এই এফজেডএস-এ থাকছে একাধিক নতুন ফিচার। সবচেয়ে আকর্ষনীয় ফিচার হিসেবে এর ব্রেকিংয়ে থাকছে ডাবল ডিস্ক ব্রেক এবং সাথে সিঙ্গেল চ্যানেল এবিএস। হেডলাইটটি দেখতে সম্পূর্ণ আলাদা এবং এলইডি যেখানে FZs V2 তে হ্যালোজেন ল্যাম্প ব্যবহার করা হয়েছিল। থাকছে নতুন ডিজাইনের ফুয়েল ট্যাংক যা আগের থেকে মাস্কুলার।

আগে এই মোটরসাইকেলে স্টেপ আপ সিট থাকলেও নতুন ভার্সনে থাকছে সিঙ্গেল সিট। স্পীডোমিটারটি একেবারে এফজেড ২৫০ এর মত। একজোস্টটিও দেখতে আগের থেকে আলাদা।

আসুন এবার দেখে নেয়া যাক, কি কি অপরিবর্তিত রয়েছে। বাইকটিতে আগের FZs V2 এর ১৪৯ সিসি’র ফুয়েল ইঞ্জেকশন ইঞ্জিনটিই ব্যবহৃত হয়েছে যা ১৩.২ Bhp মাক্সিমাম পাওয়ার এবং ১২.৮ Nm টর্ক উৎপন্ন করতে পারে। রয়েছে 5 Speed গিয়ার বক্স এবং চেসিসে ব্যবহার করা হয়েছে ডায়মন্ড ফ্রেম। সামনে টেলিস্কোপিক এবং পেছনে সুইংআর্ম সাসপেনশন থাকছে।

টায়ার সাইজ আগের মতই সামনে ১০০/৮০ এবং পেছনে ১৪০/৬০ সেকশন এমআরএফ ব্রান্ডের টিউবলেস টায়ার ব্যবহার করা হয়েছে। হাইট, লেন্থ, সিট হাইট, গ্রাউন্ড ক্লিয়ারেন্সও আগের মতই থাকছে।

মন্তব্য

About The Author

Related Posts

error: Content is protected !!