মোটরসাইকেল অয়েল বনাম গাড়ির অয়েল – কিভাবে মোটরসাইকেলের অয়েল চিনে নেবেন

Tourino Tyres
ইদানিং বিভিন্ন ফেসবুক গ্রুপে দেখা যায় মানুষ খুব পরিমানে কার অয়েল বাইকে দিচ্ছে এবং অপরকেও সাজেস্ট করতেসে! তাই অনেকদিন আগে আমার লেখা এই পোস্টটা আপনাদের সাথে শেয়ার করলাম।
অনেকেই তাদের মোটরসাইকেলে বাজারে থাকা বিভিন্ন গাড়ির অয়েল নিশ্চিন্তে ব্যবহার করে আসছেন এবং বিভিন্ন বাইকিং গ্রুপ ও পেজগুলাতে অনবরত সাজেশন দিয়ে আসছেন। কিন্তু উনারা জানেন না যে তারা বাইকের নিরব একটা ক্ষতি করে যাচ্ছেন যার নেগেটিভ ফলাফল অনেক পরে পান।
এই দুই টাইপের বাহনের লুব্রিকেশন সিস্টেম নিয়ে একটু কথা বলি।
গাড়ি: এদের ইঞ্জিন লুব্রিকেশনের জন্যে ইঞ্জিন অয়েল আর ক্লাচ ও গিয়ারের জন্যে গিয়ার অয়েল ইউজ করা হয়। তাই গাড়ির ইঞ্জিন অয়েল দ্বারা ক্লাচ-গিয়ার লুব্রিকেশন হয় না বিধায় গাড়ির ইঞ্জিন অয়েলে”এন্টি ক্লাচ স্লিপ এডিটিভ্‌স” থাকে নাহ। এই এডিটিভস কোন অয়েলে থাকলে তাতে “JASO-MA”(Japanese Automotive Standards Organization) certificate থাকে। তাই গাড়ির অয়েলে এই সার্টিফিকেট থাকে নাহ।
মোটরসাইকেল: এদের লুব্রিকেশন একটি অয়েল দিয়ে হয়ে থাকে(Royel Enfield , যাবতীয় ২ স্ট্রোক এবং স্কুটার বাইক ব্যাতিত) যা একসাথে ইঞ্জিন কম্পনেন্ট ও ক্লাচ-গিয়ার সিস্টেমকে লুব্রিকেট করে। তাই মোটরসাইকেল অয়েলে “এন্টি ক্লাচ স্লিপ এডিটিভ্‌স” থাকে। তাই মোটরসাইকেল অয়েলে অবশ্যই এই JASO-MA or MA2 certificate থাকবে । এছাড়া প্রায়ই মোটরসাইকেল অয়েলে “4T” লিখা থাকে। এবং JASO-MA certificate অয়েলে “Friction Modifier” এডিটিভস থাকবে নাহ।
এই সংক্রান্ত কিছু প্রশ্ন এবং তার উত্তরঃ-

প্রশ্নঃ “এন্টি ক্লাচ স্লিপ এডিটিভ্‌স” কি জিনিস?
উত্তরঃ এটি এক প্রকার কেমিকেল উপাদান যা ক্লাচ-স্লিপ রোধ করে। এটি বাইক অয়েলে এন্ড গিয়ার অয়েলে মিশানো হয় অয়েল প্রক্রিজাত করার সময়।

প্রশ্নঃ গাড়ির অয়েল বাইকে ইউজ করলে কি হবে?
উত্তরঃ গাড়ির অয়েল বাইকে ইউজ করলে ইনস্ট্যান্ট কোন ক্ষতি হবে নাহ। বাইক স্মুথলি ই চলবে। বাট, গাড়ির অয়েলে “এন্টি ক্লাচ স্লিপ এডিটিভ্‌স” না থাকায় এটি ইউজ করলে ক্লাচ স্লিপ করবে যার কারন হলো এই “Friction modifier addtives থাকার কারনে এবং “এন্টি ক্লাচ স্লিপ এডিটিভস” না থাকার কারনে, যা দীর্ঘদিন ব্যাবহারের ফলে ক্লাচ প্লেট ডিউরাবিলিটি অনেক কমিয়ে দিবে এন্ড গিয়ার শিফটিং হার্ড মনে হবে।

প্রশ্নঃ মোটরসাইকেল অয়েল চিনবো কিভাবে?

উত্তরঃ

  • মোটরসাইকেল অয়েলের বোতলের যেকোন পাশে অবশ্যই JASO-MA(or MA2) certificate লিখা থাকবে। এটাই মোটরসাইকেল অয়েল চিনার প্রধান উপায়।
  • “4T ” or “4 Takt” or “Motorcycle oil” লিখা থাকলে বুঝতে হবে এটা মোটরসাইকেল অয়েল। (এটা সহজতম উপায়,তবে অনেক সময় এটা লিখা নাও থাকতে পারে)
  • মোটরসাইকেল অয়েলের বোতলে কখনই API- S’X’/ CF(X= G,L,M ,N etc) লিখা থাকবে নাহ। শুধুমাত্র API- SG or SL or SM or SN লিখা থাকবে, CF থাকবে নাহ। সাথে JASO-MA or MA2 certificate থাকবে।

প্রশ্নঃ কিন্তু ভাই, গাড়ির অয়েল ইউজ করেতো বাইক একটু স্মুথ পাইতেসি যা একি দামের বাইক অয়েলে পাই নাহ,কারন কি??
উত্তরঃ জি ভাই, গাড়ির অয়েলে “এন্টি ক্লাচ স্লিপ এডিটিভ্‌স” না থাকায় & গাড়ির অয়েলে “ফ্রিকশান মডিফায়ার” এডিটিভস ইউজ করা হয় বিধায় ইঞ্জিন সামান্য স্মুথ মনে হয় সেম ক্যাটাগরি & সেম প্রাইসের বাইক অয়েলের সাপেক্ষে। এটার বিশদ ব্যাখ্যা আছে,ডিটেইলস এ না গেলাম।
বাট,এটা ক্লাচের-গিয়ার এর জন্যে ক্ষতিকর,তাই ইউজ করবেন্না।

বাজারে থাকা কিছু কমন এবং খুব ভালো মানের গাড়ির অয়েলের লিস্ট দিলাম যা প্রায়ই মানুষ ভূল করে মোটরসাইকেলে ব্যবহার করে :-

-BP oils( Super V & Viscoo)
– Mobil Special
– ptt Performa
-Castrol GTX
– Mobil 1 (Racing 4T বাদে বাকি গুলো)
– Total quartz
– Kixx G
– HPX
– Shell Helix (মোটরসাইকেলের জন্য Shell Advance)

লিখেছেনঃ সাহেদ এহসান আবির (মডারেটর – Fuel Injection Club BD-FCB)
মন্তব্য

About The Author

Related Posts

error: Content is protected !!