“উপরে ফিটফাট, ভেতরে সদরঘাট”- এমন R15 V3 নিয়ে আসছে ইয়ামাহা ইন্ডিয়া?

শীঘ্রই ভারতে লঞ্চ হতে যাচ্ছে Yamaha R15 Version 3.0 এবং অনেক ইন্ডিয়ান বাইকারই অধীর আগ্রহে বসে আছেন এই বাইকটির জন্য। ইতঃমধ্যে বাংলাদেশে R15 V3 লঞ্চ হয়েছে কিন্তু সেগুলো বাংলাদেশে এসেছে ইন্দোনেশিয়া থেকে বিভিন্ন বাংলাদেশি ইমপোর্টারের মাধ্যমে। যদিও বাংলাদেশে ইয়ামাহার ডিস্ট্রিবিউটর ACI Motors Ltd. যারা মূলত বাইকগুলো ইমপোর্ট করে থাকে ইয়ামাহা ইন্ডিয়ার নিকট হতে। তাই ভারতে লঞ্চ হওয়ার কিছু দিনের মধ্যে হয়তো ACI Motors Ltd. মারফত বাংলাদেশে চলে আসবে Yamaha R15 Version 3.0 (Indian). অনেক বাংলাদেশি বাইকাররাও অপেক্ষা আছেন যে, ACI Motors Ltd মারফত R15 V3 বাংলাদেশে আসলে হয়তো বাইকটির দাম হয়তো কিছুটা কমবে।।

কিন্তু ভারতীয় মিডিয়া আর বাইকিং ওয়েবসাইটগুলোতে যে খবর প্রকাশিত হয়েছে তা সত্যি বাংলাদেশ এবং ভারতের বাইকারদের জন্য হতাশা বয়ে এনেছে।

কার ব্লগ ইন্ডিয়া ডট কম মারফত জানা গেছে ইন্ডিয়াতে যে Yamaha R15 V3-টি লঞ্চ হতে যাচ্ছে সেটিতে থাকছে না অনেক ফিচার। দেখতে Version 3.0-এর মত হলেও সেটিতে যে ফিচারগুলো থাকবে সেটি মূলত R15 Version 2.0-এর মতই। আমরা জানি, অন্যান্য দেশে (যেমনঃ ইন্দোনেশিয়া) Yamaha R15 V3-তে অনেক অত্যাধুনিক ফিচারগুলো ব্যবহার করা হয়েছে যা বাইকটিকে একটি স্পোর্টস বাইক হিসেবে নতুন মাত্রা প্রদান করেছে।

ইন্ডিয়ান R15 V3-এর ফ্রন্টে থাকছে না আপ-সাইড-ডাউন সানপেন্সন (USDs) বরং থাকছে Version 2.0-এর মতই  টেলিস্কোপিক ফর্ক। আগের ভার্সনের মতই এটিতে থাকছে MRF স্পোর্টস ট্যায়ার। এর ফ্রন্ট ফেন্ডার V2-এর মতই। বাইকটিতে ভিভিএ টেকনোলজি ব্যবহার করা হলেও থাকছে না স্লীপার ক্লাচ।

আমরা জানি R15 V3-এর ইঞ্জিন ১৫৫.১ সি,সি যেটিতে রয়েছে লিকুইড কুলড সিস্টেম এবং এর ইঞ্জিন ১৯.০৪ bhp (১০,০০০ RPM) শক্তি উৎপন্ন করতে পারে। কিন্তু শোনা যাচ্ছে ইন্ডিয়ান R15 V3-এর ইঞ্জিন ডিসপ্লেসমেন্ট পুরাতন ভার্সনের মতই ১৪৯ সি,সি’র থাকছে যেটি কিনা সর্বোচ্চ ১৭ PS শক্তি উৎপন্ন করতে পারে।

এখন প্রশ্ন হচ্ছে ইন্ডিয়ান Yamaha R15 Version 3.0-তে কেন এমন পরিবর্তন? মূলত R15 V3 যাতে কিছুটা সুলভ মূল্যে ক্রেতাদের কাছে পৌঁছানো যায় এটিই তাদের মূল লক্ষ্য। কিন্তু দাম কি পরিমাণ কমতে পারে? আমরা আশা করতে পারি বাংলাদেশে এর প্রত্যাশিত মূল্য ৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা। কিন্তু আর কিছুটা বেশি মূল্যে যদি ইন্দোনেশিয়ান R15 V3 পাওয়া যায়, তবে কি কেউ উৎসাহিত হবেন ইন্ডিয়ান R15 Version 3.0 কিনতে? এখন অপেক্ষার পালা।

 

সূত্রঃ কার ব্লগ ইন্ডিয়া

 

About The Author

Related Posts

error: Content is protected !!
%d bloggers like this: