মোটরবাইক দূর্ঘটনার সাধারণ কারণ সমূহ (একজন অভিজ্ঞ বাইকারের অভিজ্ঞতা)

Tourino Tyres

অভিজ্ঞতা এমন একটি জিনিস যা কখনো বিতরণ করা যায় না। তবে মূল্যায়ন করলে বাস্তব জীবনের কোন একটা সময় এসে তার গুরুত্ব উপলব্ধি করা যায়। আমরা যারা অনেক দিন যাবৎ মোটরসাইকেল চালাই তাদের অনেকের ভান্ডার অনেক রকম অভিজ্ঞতা জমে আছে। আর লেখনির মাধ্যমে সেই অভিজ্ঞতাকে “ফুয়েল ইঞ্জেকশন ক্লাব, বাংলাদেশ (এফ,সি,বি)” গ্রুপে পোস্ট করেছেন গ্রুপটির মডারেটর ডাঃ ফয়েজ ইসলাম। লেখাটির গুরুত্ব উপলব্ধি করে আমরা টিম দেশি-বাইকার লেখাটি আমাদের ব্লগে শেয়ার করালাম। আশা করি আপনারা লেখাটি পড়ে নতুনরা অনেক কিছু জানতে পারবেন আর অভিজ্ঞরা তার অভিজ্ঞতার সাথে বিষয়গুলো মিলিয়ে নিতে পারবেন।

১। একটি গাড়ী আপনার সামনে হঠাৎ বামে অথবা ডানে টার্ণ নিলে

সবচেয়ে সাধারণ মোটরসাইকেল দুর্ঘটনা। একটি গাড়ী যখন আপনাকে দেখতে বা আপনার গতি ভুলভাবে বিচার করতে ব্যর্থ হয়, তখনই এই দুরঘটনা ঘটে। অকথ্য অন্ধ স্পট এবং এমনকি মনোবিজ্ঞানীদের মতে রাস্তায় একজন গাড়ী চালক অন্য গাড়ী পিছনে থাকলে বেশী স্বাচ্ছন্যবোধ করেন, একজন মোটরসাইকেল আরোহী থেকে।

২। আপনি একটি ব্লাইন্ড কর্নার মধ্যে দিয়ে যাওয়ার সময় এক্সিডেন্ট করেত পারেন

আপাতঃ দৃষ্টিতে কোনও সতর্কবাণী ছাড়াই, যখন আপনি আপনার পথের মধ্যে বালি, নুড়ি, পাতা, গরুর গোবর ইত্যাদির মধ্যে যদি আপনার সামনের চাকা পরে সেটা স্লিপ করে আপনি এক্সিডেন্ট করতে পারেন। সুতরাং ব্লাইন্ড কর্ণারে অবশ্যই সর্তকতার সাথে যেতে হবে আর আপনার টায়ারে যদি পিচ্ছিল কিছু লাগে তা পরিস্কার করে নিতে হবে।

৩। আপনি একটি রাস্তার বাকে খুব দ্রুত প্রবেশ করলেন

এঙ্গেল করে বাইক চালানোর মধ্যে কেমন জানি একটা হিরো হিরো ভাব আছে যেটা মোটামোটি আমরা সকলেই ফিল করি। আমাদের দেশের অধিকাংশ এক্সিডেন্ট হয় রাস্তার বাকে খুব দ্রুত প্রবেশ করার জন্য। সুতরাং এই বিষয়টি আমাদের খেয়াল রাখতে হবে।

৪। একটি গাড়ীর হঠাৎ লেন পরিবর্তন

আমাদের দেশের গাড়ীচালকরা অনেকেই লুকিং গ্লাস দেখে গাড়ী চালান না এবং তাদের একটি বড় সমস্যা হলো হঠাৎ লেন পরিবর্তন করা। সুতরাং গাড়ি চালানোর সময় সামনের গাড়ির গতিবিধি লক্ষ্য রাখতে হবে।

৫। একটি গাড়ি পিছনে থেকে আপনাকে ধাক্কা দিতে পারে

পিছনের চালকের কাছে যদি আপনার জন্য তার রাস্তার ভিউ ক্লিয়ার না থাকে তাহলে এই সমস্যা হতে পারে,রাস্তায় হঠাৎ অনেক সময় কুকুর, বিড়াল, এমনকি বোকা কিসিমের কিছু মানুষ চলে আসে, আপনি হঠাৎ ব্রেক করলেন পিছনের চালক দেখতে পারলো না,তখনই এই এক্সিডেন্টটা ঘটে।

৬। আপনার রাইডিং বন্ধুরা যদি স্টুপিড হয়

আপনি এটা ঘটতে দেখেছেন, একটি গ্রুপ যখন ট্যুর করার জন্য বের হয়, একজন স্টুপিড রাইডার যথেস্ট এক্সিডেন্ট করানোর জন্য। অযথা বাউলি মারা, স্পিড আপ, ওভারটেকিং করা। সুতরাং আপনি যাদের সাথে ট্যুরে যাবেন আগে থেকে বাকী সবার মধ্যে একটা মিচুয়াল আন্ডারস্টেন্ডিং থাকতে হবে চালানোর ক্ষেত্রে।

৭। আপনার বাইকের সামনের ব্রেক যদি লক হয়ে যায়

হঠাৎ যদি অনেক দ্রুত সামনের হাইড্রোলিক ব্রেক ইউজ করেন তাহলে সেক্ষেত্রের সামনে ডিস্ক ব্রেক লক হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। অনেক সময় রাস্তায় সুন্দরী মেয়ে দেখে 😁😁 ব্রেক করি এটা মোটেও উচিত না, ব্রেক করলেন পর মুহুর্তে নিজেকে মাটিতে গড়াগড়ি খাইতে দেখলেন।

৮। একটি গাড়ী তার দরজা যদি হঠাৎ খুলে ফেললে

সিটি রাইডিং এ এক্সিডেন্ট হওয়ার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ একটি কারণ হলো এটি। দেশে বোকা অসচেতন মানুষের অভাব নাই, সুতরাং সামনের থামা গাড়ি ক্রস করার সময় স্লো করে যেতে হবে, খেয়াল রাখতে হবে।

৯। স্লিপারী/ পিচ্ছিল রাস্তা আরেকটি অন্যতম কারণ
যে কোনা রাস্তা রাইড করার সময় তার অবস্থা আগে থেকে অনুমান করে গাড়ীর গতি মেপে চলতে হবে। বৃস্টি ছাড়াও অতিরিক্ত গরমে রাস্তার পিচ গলে রাস্তা পিচ্ছিল থাকতে পারে। তাছাড়া রাস্তায় যদি কোন তেল/মবিল এর ট্যান্কর থেকে তেল/মবিল পরে থাকে, সেক্ষেত্রেও রাস্তা পিচ্ছিল থাকতে পারে। সুতরাং রাইডিং এর সময় রাস্তার দিকে খেয়াল রাখাও জরুরী.

১০। এডিকটড/নেশাক্ত অবস্থায় বাইক চালানো
নেশা! অন্যতম বিশেষ একটি কারণ এইদেশে বাইক এক্সিডেন্টের। অনেকেই আছে মাদক সেবন করে গাড়ী চালান, এটা হয়তবা তার বন্ধুদের কাছে হিরোইজম প্রকাশ করার মাধ্যম! কিন্তু তার এই ভূলের কারণে একটি পরিবারে আজীবনের জন্য শোক নেমে আসতে পারে। সুতরাং নো টু এডিকশন এন্ড নো রাইড উইথ এডিকশন।

 

ছবিঃ গুগল থেকে সংগৃহীত

মন্তব্য

About The Author

Related Posts

error: Content is protected !!