Suzuki Bangladesh
ইভ্যালি'র অফার এবং হয়রানী - দেশি বাইকার

ইভ্যালি’র অফার এবং হয়রানী

Tourino Tyres

৪ মাস হয়ে গেল অর্ডারকৃত বাইকের খোঁজ নেই আবার নিত্যনতুন অফার ইভ্যালিতে (evaly.com.bd)।

অনেকটা বাধ্য হয়ে এই রিভিউ, অনেক অপেক্ষা করে দেখলাম কিছুতেই কিছু হচ্ছে না। আমি চাই না কেউ না যেনে বুঝে অফার দেখে হুট করে তার শখের বাইকটা কেনার জন্যে ইভ্যালিতে টাকা ঢুকিয়ে বিপদে পড়ুক। অথবা আমার পরিচিত অনেকের মত নানা হয়রানির পর শো-রুম থেকে অপমানিত হোক।
২০১৯ এর অক্টোবরে গিফট কার্ড কিনেছি, নানান টেকনিক্যাল কারনে অর্ডার করতে পারিনি। অবশেষে যখন অর্ডার করলাম সেটাও ক্যান্সেল হল (CC থেকে ভূল ইনফো দেয়ার কারনে) তারপর ডেমো বাইক শপ থেকে ৭ ফেব্রয়ারি অর্ডার করলাম Yamaha FZS/FZ V3 সেটাও ৪ মাস হয়ে গেল।
বাইকের খোঁজ নেওয়ার জন্যে ফোন দিলেই বর্তমান পরিস্থিতির কথা বল, অথচ সকল পরিস্থিতিতে ইভ্যালির কার্যক্রম স্বাভাবিক ছিল। আর যদি লক ডাউন এর জন্যে অস্বাভাবিক পরিস্থিতির কথা ধরি সেটাও আমার অর্ডারের (৭ ফেব্রয়ারি) অনেক পরে।
আমি এমন কোন মাধ্যম নেই যে আমার সমস্যার বিস্তারিত জানাইনি ইভ্যালির ম্যানেজমেন্ট এর কাছে, এরপরও দে জাস্ট ডোন্ট কেয়ার। সবশেষে গত ১৭ই মে ইকমার্স এর গার্জিয়ান ইক্যাব গ্রুপে বিষয়টিই নিয়ে লেখি এবং গ্রুপের প্রত্যেকটি এডমিনকে ইনবক্সে বিষয় সম্পর্কে অবহিত করি কিন্তু এখনও পর্যন্ত কোন সমাধান নেই।
ইভ্যালি থেকে ইতোঃপূর্বে বেশ কিছু প্রডাক্ট কিনি যেগুলা সম্পর্কে আমার অভিজ্ঞতা মিশ্র কিন্তু বাইকে অর্ডার করে এত বেশি হয়রানির স্বীকার হব ভাবি্নি ।
ঈদের আগের রাতে ২৫০,০০০ টাকা অর্ডারের বিপরীতে লেট ডেলিভারির কারনে ১৫ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ ব্যালেন্স হিসাবে এড হয়। বিশ্বাস করেন আমি যেই হয়রানির স্বীকার সেটা কোন ক্ষতিপুরন ফিলআপ করতে পারবেন না।
আমার রুমমেট একই ভাবে নানা ভোগান্তির পর টিভিএস সো রুম থেকে শুধুমাত্র ইভ্যালির কাস্টমার হওয়ার কারনে, শোরুমে বাইক ডেলিভারি নিতে গিয়ে চরম অপমানের স্বীকার হয়।
সর্বশেষ আজ CC থেকে বলছে এই মাসের মধ্যে দেওয়ার চেস্টা করবে। আপনারা জানেন পুরোনো এই অর্ডারগুলা ডেলিভারি না দিয়ে, সাইক্লোনসহ বাইকের মেলার আয়োজন করা হয়েছে।
আমি চাই না আপনারা ভোগান্তির স্বীকার হন। অন্ততঃ শখের বাইকটা শোরুম থেকে দেখে শুনে কিনেন। অন্য প্রডাক্ট অনলাইন থেকে কিনেন কিন্তু বাইক একটা অন্য ব্যাপার যদি আপনি রিসেলার না হন, রিসেলারদের এই গুলা নিয়ে মাথা ব্যাথা থাকে না কারন ব্যাবসার হয়রানি আর সময় এইগুলা দিতেই হবে।
আর যদি আপনার পরিচিত কেউ থাকে যে আগে আগে বাইক পাইয়ে দেওয়ার ব্যাবস্থা করবে সেটা অন্য কথা।
ধন্যবাদ সকলকে!
লেখাটি Deshi Biker ফেসবুক গ্রুপে পোস্ট করেছেন Md. Mahfuz Ahmmed
মন্তব্য
Shell Advance

About The Author

Related Posts

error: Content is protected !!
×