deshibiker.SALE
Lifan KPR 165 Carb ইউজার রিভিউ (লিখেছেন আরিফ ইস্তিয়াক)

Lifan KPR 165 Carb ইউজার রিভিউ (লিখেছেন আরিফ ইস্তিয়াক)

Tourino Tyres

বাইক!!!
ছোটবেলায় বুঝতে শুরু করার পর থেকে বেশিরভাগ মানুষের ক্রেজ এর একটা জিনিস। আমিও তার বাইরে ছিলাম না।।

কিন্তু সমস্যাটা ছিল ফ্যামিলি। কখনোই তারা আমাকে বাইক এর ব্যাপারে সাপোর্ট করেনি। হয়তো তারা আমার ভালই চেয়েছিল। কিন্তু শখ তো দমে থাকার না। তাই ছোট বেলা থেকে ভাবতাম কবে টাকা রোজগার করবো আর কবে একটা বাইক হবে আমার।।

যাইহোক…শখটাকে জিম্মি করে পড়াশুনা করতে থাকলাম, একটা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ে চান্সও পেলাম। এরপর থেকে শখ এর ভুত আরও মাথাচাড়া দিয়ে উঠলো।।

শুরু করলাম টিউশনি, এক পর্যায়ে ভর্তি কোচিংএ ক্লাস নেয়া শুরু করলাম, জমাতে থাকলাম টাকা। টাকাও প্রায় হয়ে গেল কিছু।।

তারপর যেটা ঝামেলা, বাইক সিলেকশন নিয়ে!!!
কষ্টের টাকা, একটা ভাল বাইক না হলে তো আফসোস এর শেষ থাকবে না।।

রিভিউ দেখা শুরু করলাম বিভিন্ন ওয়েবসাইট আর ইউটিউবএ। একটা কথা বলে রাখি, আমার কখনোই চায়না-জাপান-ইন্ডিয়ান নিয়ে মতভেদ ছিলনা, কথা হলো যে দেশের হোক বাইকটা যেন আমার বাজেট এর মধ্যে ভাল হয়।।

 

সালটা ছিল ২০১৭।। অনেক চিন্তার পর সিদ্ধান্ত পাকা করলাম KPR150 নিব, নিয়েও নিলাম। জীবনের প্রথম বাইক, চালালাম ৩০০০০কি.মি। এরপর শিফ্ট করলাম ১৬৫ কার্ব ভারসন এ। এটা অলমোস্ট ৩০০০কি.মি. চালালাম ১মাস এ।।

কথা হলো যেটা, আমি ১৫০ আর ১৬৫ এর তুলনামুলক ভাল খারাপ দিকগুলো তুলে ধরার চেষ্টা করছি….

১. ১৫০ আর ১৬৫ এর বেসিক পার্থক্য ইন্জিন এ, লুক আনচেন্জড্।

২.১৫০ এর গিয়ার শিফটিং আর ক্লাচ হার্ড ছিল যেটা ১৬৫ এ পুরোপুরি সল্ভড্ বলে আমার মনে হয়।

৩.হিটিং ইস্যু ১৬৫ এ কিছুটা কম তবে পুরোপুরি সল্ভড্ না বলে মনে হচ্ছে।

৪.১৬৫ এর ইনিশিয়াল এক্সিলারেশন ১৫০ এর চেয়ে বেশি কিন্তু টপ স্পিড আমার মনে হচ্ছে কম হবে যতটুকু চালিয়ে বুঝেছি।

৫.১৬৫ আগের থেকে অনেক বেশি স্মুথ,যেটা ট্যুর এ হেল্পফুল।

৬.আমার কাছে হেডলাইট এর আলো ১৫০ এর টা বেশি পাওয়ারফুল মনে হইছে।

৭.সিটিং পজিশন ১৬৫ এর টা ১৫০ এর চেয়ে বেশি কম্ফোর্ট মনে হইছে।

৮.পিলিয়ন কম্ফোর্ট আমার কাছে বেটার মনে হইছে।

সবচেয়ে নোটিশ করার মত যে তিনটা তা হলোঃ

১.পিছনের চাকা ১৫০তে ছিল ১২০-৭০-১৭ সাইজের যেটা ১৬৫ এ করা হয়েছে ১৩০-৭০-১৭ সাইজের।

২.১৫০ তে না থাকলেও ১৬৫ এ মোবিল ফিল্টার দেয়া হয়েছে যেটা প্রতিবার মোবিল চেন্জ করার সময় ওয়াশ করে ইউজ করতে পারবেন, চেন্জ করতে হবেনা।

৩.মাইলেজ ১৬৫ এ ১৫০ এর চেয়ে কম, তবে রাসেল ইন্ডাস্ট্রিজ সেটার সল্ভও নিয়ে আসছে। তবে আমার ব্যক্তিগত মতাতমত….পারফরমেন্স চাইলে মাইলেজ এর চিন্তা ঝেড়ে ফেলুন।

সবশেষে যেটা বলবো…আপনি যদি স্বল্প বাজেটএ নিশ্চিন্তে একটা ভাল সেমি-স্পোর্টস + ট্যুর বাইক চান, KPR165 Carb আপনাকে নিরাশ করবেনা 🙂

#Take_Care_of_Your_Bike
#Do_Proper_Break_In
#Take_Proper_Safety_When_Riding
#Enjoy_Your_Ride

#Live_Free_Ride_Safe🙂

লিখেছেনঃ আরিফ ইস্তিয়াক

মন্তব্য
Shell Advance

About The Author

Related Posts

error: Content is protected !!
×