আসল MT হেলমেট কিনছেন তো!

কষ্টের টাকায় অনিরাপদ হেলমেট কিনছেন না তো? চলুন জেনে নেই আসল MT হেলমেট চিনে নিবেন কিভাবে।

বাইক খুবই গুরুত্বপূর্ন একটি বাহন। বাংলাদেশে প্রতিনিয়ত বাইক এর জনপ্রিয়তা এবং ব্যবহার বেড়ে যাচ্ছে। বিশেষ করে বর্তমান করোনাকালীন সময়ে তা আরো কয়েকগুন বেশি হয়ে দাঁড়িয়েছে। তবে এই বাইক চালাতে গেলে সবচেয়ে প্রয়োজনীয় জিনিসটি হচ্ছে হেলমেট। কারন এই হেলমেট ই আমাদের দেহের সবচাইতে গুরুত্বপূর্ন অঙ্গ আমাদের মাথা কে নিরাপত্তা দিয়ে থাকে। তাই হেলমেট কেনার ক্ষেত্রে অবশ্যই আমাদের সেইফটি এবং সার্টিফিকেট এর দিকে খেয়াল রাখতে হবে।

বছর খানেক আগেও আমাদের দেশে ভাল মানের সার্টিফাইড হেলমেট এর প্রচলন তেমন একটা ছিলো না বললেই চলে। আর সাধারণ মানুষের অধিকাংশই হেলমেট পড়তো কেবল মাত্র পুলিশের হাত থেকে রেহাই পাওয়ার জন্য। এর জন্য কোনোরকম একটা হেলমেট হলেই হলো। কিন্তু বর্তমান সময়ে এই জায়গাটায় বেশ পরিবর্তন হচ্ছে। মানুষ এখন বেশ সচেতন। তাই বাইকাররা এখন হেলমেট কিনতে গেলে সার্টিফিকেট দেখে হেলমেট কেনার চেষ্টা করে। কিন্তু বাজারে এখন প্রচুর নকল সার্টিফাইড এবং নকল হেলমেট বিক্রি হচ্ছে। তাই হেলমেট কেনার ক্ষেত্রে শুধু সার্টিফিকেশন দেখলেই হবে না, সেই সাথে হেলমেট টি আসল কিনা সেটাও দেখে নিতে হবে।

বর্তমানে বাংলাদেশের বাজারে অনেকগুলো ভালো ব্র্যান্ডের হেলমেট পাওয়া যাচ্ছে। এর মধ্যে বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে MT হেলমেটস বেশ সুনাম অর্জন করেছে। বাজেটের মধ্যে তারা বেশ ভাল মানের সার্টিফাইড হেলমেট বাজারে নিয়ে আসছে। বাংলাদেশে MT হেলমেট এর একমাত্র অফিশিয়াল ডিস্ট্রিবিউটর Raida Trade International। কিন্তু কিছু অসাধু ব্যবসায়ী বাজারে আনঅথোরাইজড কপি হেলমেট বিক্রি করে। আপনি সে ফাঁদে পা দিচ্ছেন না তো?

কিভাবে আপনি নকল হেলমেট থেকে রক্ষা পাবেন?
১। হেলমেট কেনার সময় অবশ্যই ওয়ারেন্টি কার্ড বুঝে নিবেন।
২। ম্যানুফাকচার ওয়ারেন্টি অ্যাকটিভ করুন।
৩। ক্র্যাশ রিপ্লেসমেন্ট ও হেলথ বেনিফিট নিশ্চিত করুন।
৪। নিজ দায়িত্বে ওয়ারেন্টি কার্ড রেজিস্ট্রেশন করে নিবেন (নিজে না করতে পারলে শপ সেলার থেকে করিয়ে নিবেন)।
৫। অথোরাইজড ডিস্ট্রিবিউটর বা সেলস পয়েন্ট থেকে হেলমেট কিনবেন। নিচের লিঙ্ক থেকে অথোরাইজড শপ এর লিস্ট দেখে নিন: https://cutt.ly/ubY8PL7

 

উপরের নিয়ম গুলো মেনে অফিসিয়াল MT Helmets চিনতে পারবেন। সাধারনত কপি অথবা নকল যেসব MT হেলমেট বাজারে আছে, সেগুলোর সাথে যদি কোনো কার্ড দিয়ে থাকে সেটার QR code স্ক্যান করে কোনো অথেনটিক তথ্য পাবেন না। সেই সাথে অফিসিয়াল ওয়ারেন্টি এবং ক্র্যাশ রিপ্লেসমেন্ট গেরান্টি ও পাবেন না। তাই অবশ্যই অফিসিয়াল ডিস্ট্রিবুটর এর থেকে অরিজিনাল হেলমেট কিনুন। সবসময় সার্টিফাইড হেলমেট ব্যবহার করে বাইক রাইড করুন।

Related Posts